,

শিরোনাম :
«» গার্মেন্টস শ্রমিকের বোনাস ৩০ মে এবং বেতন ২ জুনের আগেই প্রদানের আহবান শ্রম প্রতিমন্ত্রীর «» জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে গৃহীত কর্মসূচি «» চীনা বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান মোমেনের «» কৃষকদের ধান কাটতে সহযোগিতা করছে ছাত্রলীগ «» দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে সকলের দোয়া চাইলেন প্রধানমন্ত্রী «» বিশ্বে সাম্য প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধু থেকে শিক্ষা গ্রহণের অনেক কিছু আছে : তথ্যমন্ত্রী «» মোদিকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন, নির্বাচনে বিপুল বিজয়ে আন্তরিক অভিনন্দন «» চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের মধ্যে রেল সংযোগ নির্মাণে এডিবি সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর «» আসন্ন ঈদ-উল ফিতরে ঘরমুখো মানুষের বাড়ি ফেরা নির্বিঘ্ন করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের আহবান «» শিশু-কিশোরদের জন্য সাংস্কৃতিক কার্যক্রম বাড়াতে হবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

উৎপাদনশীলতা বাড়াতে ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ

নিউজ ডেস্ক:-খাতভিত্তিক উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ‘ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি মাস্টার প্ল্যান ফর বাংলাদেশ’ শীর্ষক কর্মসূচি প্রণয়ন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। জাপানের ন্যাশনাল স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যানের আওতায় এ কর্মসূচি প্রণিত হবে।
এ মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নে সহায়তার জন্য থাইল্যান্ড ও সিঙ্গাপুরের তিন সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ দল আগামীকাল ঢাকায় আসছেন। তারা বিভিন্নখাতের অংশীজনদের সাথে আলোচনা করে উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন কৌশল নির্ধারণ করবেন। তাদের সুপারিশের ভিত্তিতে পরবর্তীতে বাংলাদেশের জন্য এ মাস্টার প্ল্যান চূড়ান্ত করা হবে।
আজ মঙ্গলবার শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন কৌশল’ শীর্ষক এক কর্মশালায় এ তথ্য জানানো হয়
তৈরি পোশাক শিল্পে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) সদস্যভূক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবস্থাপনার সাথে জড়িত প্রতিনিধিদের নিয়ে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও) এ কর্মশালার আয়োজন করে।
ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশনের পরিচালক এস এম আশরাফুজ্জামানের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিকেএমইএ’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ, পরিচালক মোহাম্মদ মোস্তফা মনোয়ার এবং নিটওয়্যার খাতের উৎপাদনশীলতা বিশেষজ্ঞরা বক্তব্য রাখেন।
অনুষ্ঠানে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ২৭টি টুলস ও কৌশলের প্রয়োগ সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, দীর্ঘমেয়াদী এ পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে বাংলাদেশের শিল্পখাতসহ সকলখাতে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির সুযোগ তৈরি হবে। এর ফলে বাংলাদেশে উৎপাদিত পণ্যের প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার দক্ষতা ও সক্ষমতা বাড়বে। এতে করে রপ্তানি বাণিজ্যে বাংলাদেশের অবস্থান শক্তিশালী হবে।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি আর উৎপাদন বৃদ্ধি এক কথা নয়। উৎপাদনের সকল উপকরণের পরিমাণ সমানভাবে বজায় রেখে আগের চেয়ে উৎপাদন বৃদ্ধি পেলে উৎপাদনশীলতা বাড়ে। এর জন্য উৎপাদনের বিভিন্ন উপকরণের দক্ষ ও সাশ্রয়ী ব্যবহার জরুরী।
তারা বলেন, কৃষি, শিল্প, সেবাসহ সকল খাতে উৎপাদনশীলতা বাড়িয়ে ২০২১ সালের মধ্যে শিল্পসমৃদ্ধ মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্য বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।
উল্লেখ্য, দিনব্যাপী এ কর্মশালায় নিটওয়্যার শিল্পের সাথে সম্পৃক্ত উচ্চ পর্যায়ের ব্যবস্থাপক এবং উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন বিশেষজ্ঞরা অংশ নেন।

Share Button
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত : সিএনআই২৪ ডটকম লিমিটেড || Desing & Developed BY Themesbazar.com