Logo
×
ব্রেকিং নিউজ :
শিক্ষা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে কাজ করছে সরকার : শিক্ষামন্ত্রী সব মানুষকে বীমার আওতায় আনতে হবে: আইডিআরএ চেয়ারম্যান রেশম শিল্পকে বিশ্বমানে রূপান্তরে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে : পাটমন্ত্রী অতিরিক্ত এটর্নি জেনারেল নিয়োগ পেয়েছেন দুই আইনজীবী দেশবিরোধী অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে : ওবায়দুল কাদের ভারতের সাথে মৈত্রীবন্ধন আমাদের উন্নয়নে সহায়ক : তথ্যমন্ত্রী ভারতের উপহার অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রেজেনেকা ভ্যাকসিন পরিক্ষীত: জাহিদ মালেক আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেলেসহ সকল অবৈধ অবকাঠামো উচ্ছেদ করা হবে : এলজিআরডি মন্ত্রী পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশে আইনে বাধা দূর করতে সংসদে ৩টি বিল পাস দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ২০, সুুস্থ ৫১৪ জন
  • আপডেট টাইম : 07/01/2021 08:39 PM
  • 52 বার পঠিত

রাজধানীর পান্থকুঞ্জ, পান্থপথ ও রাসেল স্কয়ারের ড্রেনেজ পিট থেকে ১০৬ টন বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে।ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ পরিচালিত বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমের পঞ্চম দিনে এক্সকাভেটর, ড্রেজার ও গ্রেভার ব্যবহারের মাধ্যমে এসব বর্জ্য অপসারণ করা হয়। সেগুনবাগিচা বক্স কালভার্টের গোপীবাগ আউটলেটে ম্যানুয়ালি বর্জ্য উত্তোলন কার্যক্রম চলমান রয়েছে।
এদিকে আজ সকাল থেকে জিরানী খালের ত্রিমোহনী অংশে এক্সকাভেটর ব্যবহারের মাধ্যমে বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা অবধি এই কার্যক্রম চলমান ছিল। একই সাথে রাজধানীর জিরানি, মান্ডা ও কালু নগর খাল থেকে ম্যানুয়ালি বর্জ্য উত্তোলন কার্যক্রম চলমান রয়েছে।
চলমান বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম প্রসঙ্গে ডিএসসিসি’র প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মো. বদরুল আমিন বলেন, জিরানি খাল থেকে বর্জ্য অপসারণ এবং চ্যানেল পরিষ্কারের লক্ষ্যে আজ সকাল থেকে আমরা যান্ত্রিক ব্যবস্থাপনায় বর্জ্য উত্তোলন কার্যক্রম শুরু করেছি।
পাশাপাশি, সীমানা নির্ধারণ কার্যক্রমও চলমান রয়েছে। খালের সীমানার মধ্যে ইতোমধ্যে সীমিত আকারে উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে। আমাদের নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে আমরা খালের মধ্যে থাকা সকল স্থায়ী-অস্থায়ী স্থাপনা উচ্ছেদ করব।
প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা আরও বলেন, আমরা মান্ডা খাল ও শ্যামপুর খালেও বর্জ্য উত্তোলন কার্যক্রম পরিচালনা করছি। জিরানি খাল, শ্যামপুর খাল, বাসাবো কদমতলা খাল ও সেগুনবাগিচা বক্স কালভার্টের বর্জ্য অপসারণের মাধ্যমে মান্ডা খালের সাথে এসব খাল ও বক্স কালভার্টের সংযোগ স্থাপন করার লক্ষ্যে কাজ করে চলেছি। আমরা আশা করছি এর মাধ্যমে জলাবদ্ধতা অনেকটা সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে।
পান্থপথ বক্স কালভার্ট ও জিরানি খালে যন্ত্র ব্যবহারের মাধ্যমে এবং সেগুনবাগিচা বক্স কালভার্ট, শ্যামপুর খাল ও মান্ডা খাল হতে ম্যানুয়ালি বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম চলমান থাকবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...