,

শিরোনাম :
«» নারী নির্যাতনের অভিযোগে মার্কিন আইনজীবী গ্রেফতার «» মুকেশ-নীতা অম্বানীর মেয়ে,ঈশা অম্বানীর বিয়ের প্রতিটি কার্ডে দাম তিন লক্ষ টাকা (ভিডিও) «» আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তি «» ঐক্যফ্রন্টের ভোট তিন সপ্তাহ পেছানোর দাবি, আওয়ামী লীগের ‘না’ «» ‘ষড়যন্ত্র চলছে সবাই সতর্ক থাকুন, বিদ্রোহী হলে আজীবন বহিষ্কার’ «» ডেসটিনির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেনের তিন বছরের কারাদণ্ড «» বিএনপি নেতা-কর্মীদের ওপর বিনা উসকানিতে পরিকল্পিত হামলা করেছে পুলিশ : রিজভী «» সম্পূর্ণ বিনা উস্কানিতে বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশের উপর হামলা করেছে : ওবায়দুল কাদের «» নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ, গাড়িতে আগুন «» সকল প্রার্থী ও রাজনৈতিক দলের জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে সিইসির নির্দেশ

তরুণ শিক্ষার্থীরাই সমাজ পরিবর্তনের দূত : স্পিকার

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, তরুণ শিক্ষার্থীরাই সমাজ পরিবর্তনের দূত। তরুণরাই ইতিবাচক পরিবর্তন এনে গড়ে তুলবে সমৃদ্ধশালী ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ। সে কারণে শিক্ষার্থীদেরকে শিক্ষা জীবনে সচেষ্ট থেকে জ্ঞান নির্ভর শিক্ষা গ্রহণের আহ্বান জানান তিনি।
স্পিকার আজ ঢাকার ধানমন্ডিতে ইউনিভার্সিটি অভ্ লিবারেল আর্টস এর ১৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
স্পিকার বলেন, তরুণ প্রজন্ম ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দেবে। উদ্ভাবনী কৌশল এবং গবেষণার মাধ্যমে বিশ্বকে গড়ে তুলতে হবে। বর্তমান বিশ্বের প্রত্যেক নাগরিক তথ্যপ্রযুক্তি এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে একে অপরের সাথে সংযুক্ত। এ সময় তরুণ প্রজন্মকে বিশ্বে নেতৃত্ব দিতে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষায় শিক্ষিত হতে সকলের প্রতি তিনি আহ্বান  জানান।
ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বিশ্বে বাংলাদেশ আজ দ্রুত অগ্রসরমান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বর্তমান সরকার তৃণমূলে সকল সুবিধা নিশ্চিত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিগত দশবছরে দারিদ্র্যের হার ৪০ শতাংশ থেকে ২২ শতাংশে নেমে এসেছে, মাতৃমৃত্যুও শিশুমৃত্যু হ্রাস, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, বয়স্ক ও বিধবাভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতাপ্রদান করছে। রপ্তানি আয়, রিজার্ভ ও রেমিট্যান্সসহ সামাজিক ও অর্থনৈতিক সকলসূচকে বাংলাদেশের অবস্থান আজ সুদৃঢ়। বাংলাদেশ ইতিমধ্যে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়শীল দেশে উন্নীত হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ, ২০২৪ সালের মধ্যে পরিপূর্ণ উন্নয়নশীল দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
স্পিকার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে জ্ঞানকেন্দ্র। সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দেশে উচ্চশিক্ষার সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদেরকে সহনশীলপর্যায়ে খরচের মধ্যে পড়ার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানান। এ সময় তিনি মৌলিকশিক্ষার পাশাপাশি বিশেষায়িত শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। শিক্ষার্থীদেরকে গুণগত উচ্চশিক্ষা প্রদান করায় ইউল্যাব বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশংসা করেন তিনি। শিক্ষার্থীদের জন্য ইউল্যাব বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সুযোগসুবিধা প্রদান বিষয়টিও অনুসরণযোগ্য বলে স্পিকার উল্লেখ করেন।
ইউল্যাব ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর এইচ এম জহিরুল হকের সভাপতিত্বে জাতীয় অধ্যাপক এমিরেটাস প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম এবং ইউল্যাব বোর্ড অভ ট্রাস্টিজের ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. কাজী আনিস আহমেদ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

Share
Desing & Developed BY Themesbazar.com