,

শিরোনাম :
«» যৌনতার বিনিময়ে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ «» একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের আবেদন ফরম বিতরণ কাল শেষ হচ্ছে «» নির্বাচন বিষয়ে টিআইবির মন্তব্য অসৌজন্যমূলক : সিইসি «» ঢাকা উত্তর সিটির উপ-নির্বাচন হতে আইনগত বাধা নেই «» মুসলিম উম্মাহ’র ঐক্যে গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর «» রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নেপালী রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ «» স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি রোধে শুদ্ধি অভিযান চালানো হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী «» নাইরোবিতে আত্মঘাতি হামলায় নিহত ৬ «» আইসিটি রপ্তানী ৭ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে সরকার কাজ শুরু করেছে : মোস্তাফা জব্বার «» জনগণ টিআইবি’র রূপকথার গল্পের জবাব দেবে : ওবায়দুল কাদের

শিল্পমন্ত্রীর সাথে বিএমএএমএ’র নেতাদের বৈঠক

নিজস্ব প্রতিনিধি:-দেশের উদীয়মান মোটর সাইকেল শিল্পের টেকসই বিকাশের লক্ষ্যে একটি মোটর সাইকেল শিল্পপার্ক স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন এ শিল্পখাতের উদ্যোক্তারা। তারা বলেন, ইতোমধ্যে বাংলাদেশে পাঁচটিরও বেশি উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান মোটর সাইকেল ম্যানুফ্যাকচারিং শুরু করেছে। ফলে দেশে মোটর সাইকেলের মূল্য প্রায় ৫০ শতাংশ কমে এসেছে। আগামী ছয় মাসের মধ্যে কমপক্ষে আরো চারটি প্রতিষ্ঠান মোটর সাইকেল ম্যানুফ্যাকচারিং শুরু করবে বলে তারা উল্লেখ করেন।
বাংলাদেশ মোটর সাইকেল এসেম্বলারস্ এন্ড ম্যানুফ্যাকচারাস্ এসোসিয়েশনের (বিএমএএমএ) নেতারা আজ শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সাথে বৈঠককালে এ দাবি জানান। শিল্প মন্ত্রণালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠকে ভারপ্রাপ্ত শিল্পসচিব মোঃ আবদুল হালিম, বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান, শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম পরাগ ও এ এস এম ইমদাদুদ দস্তগীর, বিএমএএমএ’র সভাপতি ও উত্তরা মোটরস লিমিটেডের চেয়ারম্যান মতিউর রহমান, বাংলাদেশ হোন্ডা প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইউশিরো ইশি (Yuichiro Ishii) ও অর্থবিভাগের প্রধান আশিকুর রহমান, টিভিএস অটো বাংলাদেশ লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার রায়, রাসেল ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক শামসুল বাসার, আফতাব অটো মোবাইলস্ লিমিটেডের ঊর্ধ্বতন ব্যবস্থাপক শাহাদাত হোসেন মিয়া, স্পিডোস লিমিটেডের (Speedoz Ltd.) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেহদাদুর রহমান এবং এসিআই মটরস্ লিমিটেডের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামসহ এসোসিয়েশনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে বিএমএএমএ’র নেতারা মোটর সাইকেল শিল্পের উন্নয়নের লক্ষ্যে ‘জাতীয় মোটর সাইকেল শিল্প উন্নয়ন নীতি-২০১৮’ প্রণয়নের জন্য শিল্পমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। তারা বলেন, এ নীতি প্রণয়নের ফলে দেশে উদীয়মান শিল্পখাত হিসেবে মোটর সাইকেল শিল্প আত্মপ্রকাশ করেছে। ইতোমধ্যে এ খাতে কয়েক হাজার দক্ষ জনবল সৃষ্টির পাশাপাশি দেড় হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে এ শিল্পখাত বিলিয়ন ডলার ইন্ডাস্ট্রিতে পরিণত হবে। তারা এ শিল্পখাতের সুষম বিকাশে মোটর সাইকেল নিবন্ধন খরচ যৌক্তিক পরিমাণে নির্ধারণসহ নীতিমালার কয়েকটি দিক সংশোধনের জন্য শিল্পমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী বলেন, দেশে মোটর সাইকেল শিল্প বিকাশের ফলে জনগণের যাতায়াতে সুবিধার পাশাপাশি কর্মসংস্থানের পরিমাণ দিন দিন বাড়ছে। বিশেষ করে শিক্ষিত বেকারদের জন্য এ শিল্প কর্মসংস্থানের সুযোগ অবারিত করেছে। তিনি মোটর সাইকেল সংযোজনের পরিবর্তে ম্যানুফ্যাকচারিং শিল্পখাতে বিনিয়োগ বাড়াতে উদ্যোক্তাদের পরামর্শ দেন।
আমির হোসেন আমু বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার জনগণের জন্য সব ধরনের সেবা সহজলভ্য করতে কাজ করে যাচ্ছে। জাতীয় অর্থনীতিতে মোটর সাইকেল শিল্পখাতের গুরুত্ব অনুধাবন করে সরকার ‘জাতীয় মোটর সাইকেল শিল্প উন্নয়ন নীতি-২০১৮’ প্রণয়ন করা হয়েছে। জাতীয় স্বার্থ সংরক্ষণ করে নতুন এ শিল্প বিকাশের পথে উদ্ভূত যে কোনো সমস্যার সামাধানে সরকারের পক্ষ থেকে সম্ভব সব ধরনের নীতি সহায়তা প্রদান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি শিল্প উদ্যোক্তাদেরকে আশ^স্ত করেন।

Share
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত : সিএনআই২৪ ডটকম লিমিটেড || Desing & Developed BY Themesbazar.com