,

শিরোনাম :
«» বিচ্ছেদের আগের রাতে কী হয়েছিল? মুখ খুললেন মালাইকা «» বিশ্বের বহু দেশের চাইতে বাংলাদেশের গণমাধ্যম অনেক বেশি স্বাধীনতা ভোগ করে : তথ্যমন্ত্রী «» সড়ক নির্মাণে গুণগতমান সুরক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ সেতুমন্ত্রীর «» আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ডিএমপি’র নিরাপত্তামূলক কর্মসূচি «» বাংলাদেশ ব্যাংকের চুরি হওয়া রিজার্ভের অর্থ উদ্ধার কাজ এখনও চলমান রয়েছে : অর্থমন্ত্রী «» জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অব্যাহত নেতৃত্ব চায় : ড. হাছান মাহমুদ «» বিশ্বকাপের সেঞ্চুরিয়ান «» বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সংযুক্ত আরব আমিরাতের ২টি প্রধান ব্যবসায়ী গ্রুপ «» ২০৩০ সালের মধ্যে কালাজ্বর রোগীর সংখ্যা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা সম্ভব হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী «» স্বচ্ছতার প্রশ্নে আপোস নয় : শিক্ষামন্ত্রী

ইসির শুনানিতে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন যারা

নিউজ ডেস্ক:–একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া প্রার্থীদের অাপিল আবেদনের শুনানি শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার প্রথমদিনে নির্বাচন কমিশন (ইসি) শুনানি শেষে বেশ কয়েকজনের প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করেছে।

যাদের মনোনয়নপত্র বৈধ 
গোলাম মাওলা রনি: নির্বাচন কমিশনে আপিল করে পটুয়াখালী-৩ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম মাওলা রনি তার প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকায় যাচাই-বাছাইতে তার মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছিলেন জেলা রিটার্নিং অফিসার।

মোর্শেদ মিল্টন: প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনের বিএনপির প্রার্থী মোর্শেদ মিল্টন।

এই আসনে বিএনপির মূল প্রার্থী ছিলেন দলটির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। আর মোর্শেদ ছিলেন বিকল্পপ্রার্থী। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করার পরও তা গৃহীত না হওয়ায় প্রার্থিতা অবৈধ হয়েছিল তার।

তমিজ উদ্দিন: ঢাকা-২০ আসনে বিএনপির প্রার্থী তমিজ উদ্দিনের মনোনয়ন বৈধ বলে ঘোষণা করেছে ইসি।

মেজর (অব.) আক্তারুজ্জামান: কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য মেজর (অব.) আক্তারুজ্জামান তার প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

আজ বৃস্পতিবারসহ আগামী তিন দিন (৬, ৭ ও ৮ ডিসেম্বর) ইসিতে আপিলের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

প্রথমদিন ডিসেম্বর সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া আপিল আবেদনের শুনানিতে ক্রমিক নম্বর দিয়েছি ১ থেকে ১৬০টি আপিল আবেদনের নিষ্পত্তি হবে।

দ্বিতীয় দিন ৭ তারিখে ১৬১ থেকে ৩১০ নম্বর পর্যন্ত। শেষ দিন ৮ তারিখে ৩১১ থেকে অবশিষ্ট ৫৪৩ ক্রমিক পর্যন্ত আপিল আবেদনের নিষ্পত্তি করা হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে ৩ হাজার ৬৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। বিভিন্ন অভিযোগে ৭৮৬ জন প্রার্থীর মনোননয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসাররা।

আওয়মী লীগের মোট প্রার্থী ছিল ২৮১ জন। এর মধ্যে বাছাইয়ে বাদ পড়েছেন ৩ জন। বিএনপি ৩শ’ আসনের বিপরীতে মনোননয়নপত্র জমা দিয়েছিলো ৬৯৬ জনের। এর মধ্যে ১৪১ জনের প্রার্থিতা বাতিল হয়। আর জাতীয় পার্টির মনোনয়ন বাতিল হয়েছে ৩৮ জনের।

মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া প্রাথীদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপার্সনসহ ৫৪৩ জন নির্বাচন কমিশনে আপিল করেন।

বাকী ২৪৩ জন রিটার্নিং অফিসারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল আবেদন করেননি।

Share
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত : সিএনআই২৪ ডটকম লিমিটেড || Desing & Developed BY Themesbazar.com