Logo
×
ব্রেকিং নিউজ :
বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সৌদি আরব গার্ল গাইডসকে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ইউএনএইড’র শেখ হাসিনা আইটি খাতকে গুরুত্ব দেয়ায় দেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে : চসিক মেয়র রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ইউরোপীয় ইউনিয়নের কার্যকর সহায়তার আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াশিংটন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী ২০২৬ সালে ঢাকা-আশুলিয়া এক্সপ্রেসওয়ে চালু হবে : ওবায়দুল কাদের বিশ্ব নেতৃবৃন্দের বিশেষ আমন্ত্রণেই প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে গেছেন : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বিএনপি সবসময় চোরাগলি পথে ক্ষমতায় এসেছে : কৃষিমন্ত্রী লাকসাম-কুমিল্লা সেকশনে ডাবল লাইনের ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন নবায়নযোগ্য জ্বালানি নীতিমালার লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বছর ভিত্তিক পরিকল্পনা গৃহীত হয়েছে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
  • আপডেট টাইম : 26/08/2021 11:17 PM
  • 60 বার পঠিত

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, সময়ের প্রেক্ষাপটে ইন্টারনেটকে একটি মৌলিক অধিকার হিসেবে বিবেচনা করা এখন সময়ের দাবি।
তিনি বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় ডিজিটাল সংযোগ প্রতিটি মানুষের জীবন-জীবিকার জন্য অপরিহার্য সেবায় রূপ নিয়েছে। এ জন্যই সরকার উচ্চগতির  ইন্টারনেট মহাসড়ক নাগরিক-জীবনের গন্ডি ছাড়িয়ে দুর্গম গ্রামের মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর। এই সরকার সর্বশক্তি দিয়ে সেই লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।’
মোস্তাফা জব্বার আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীতে বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্ণেন্স ফোরাম (বিআইজিএফ) আয়োজিত ‘ইন্টারনেটের অন্তর্ভূক্তিমূলক সংযুক্তি’ শীর্ষক এক ভার্চূয়্যাল সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ি কমিটির সভাপতি ও বিআইজিএফ’র চেয়ারম্যান হাসানুল হক ইনুর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিটিআরসি‘র ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র, বিটিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. রফিকুল মতিন, এমটব’র মহাসচিব ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম ফরহাদ (অব.), সাবেক মহাসচিব টিআইএম নুরুল কবির,আইকান’র কর্মকর্তা সমিরন গুপ্ত এবং আইএসপিএবি’র সভাপতি আমিনুল হাকিম বক্তৃতা করেন। বিআইজিএফ’র কর্মকর্তা বজলুর রহমান অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ।
শহরের চেয়ে গ্রামাঞ্চলে এখন নেটের চাহিদা বেশী উল্লেখ করে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, গ্রামের মানুষ এক সময় মোবাইল ফোনকে কেবল কথা বলার জন্য ব্যবহার করতেন। কিন্ত সে-অবস্থানের পাশাপাশি তারা এখন মোবাইল-ফোনে ইন্টারনেটের ব্যবহারও শুরু করেছেন। তিনি জানান,স্মার্টফোন ব্যবহারের দক্ষতা গ্রামের অনেক বয়স্কদের নেই, তাই-বলে তারা ব্যবহার করছেন না -তা কিন্তু নয়। নতুন প্রজন্মের কাছ থেকে বৃদ্ধরাও স্মার্ট-ফোন ব্যবহারের নিয়মগুলো শিখে নিচ্ছেন। তাছাড়া, দ্রুত গতির ইন্টারনেট সংযোগ প্রদানের অনুরোধ গ্রাম থেকেই বেশি আসছে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন।
মোস্তাফা জব্বার দৃঢ়তার সাথে বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে এমন কোন ইউনিয়ন থাকবে না যেখানে অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক সংযোগ পৌঁছাবেনা। তিনি বলেন, ডিজিটাল অবকাঠামোর যে দুর্বলতা এতদিন বিরাজ করছিলো তা অতিক্রম করারও চেষ্টা চলছে।
মন্ত্রী বলেন,‘যেখানে বেসরকারি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান নেট সম্প্রসারণ করছে না সেখানে গত তিন বছরে উচ্চগতির ইন্টারনেট সেবা আমরা সরকারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে পৌঁছে দিতে শুরু করেছি।’
তিনি টেলিটকের ফাইভ-জি নেটওয়ার্ক চালু করার কথা উল্লেখ করে বলেন,  ‘ফাইভ-জি একটি ইন্ডাস্ট্রিয়াল পণ্য, এর সাথে শিল্পের সম্পর্ক। মিরেশ্বরাইসহ দেশের ৫টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ফাইভ-জি নেট সম্প্রসারণের উদ্যোগ আমরা ইতোমধ্যে গ্রহণ করেছি। ক্রমান্বয়ে চাহিদা অনুযায়ি এটি সবগুলো শিল্পাঞ্চলে সম্প্রসারণ করা হবে।’
হাসানুল হক ইনু ইন্টারনেটের সাশ্রয়ি মূল্যসহ উচ্চ গতির ইন্টারনেট নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, মোবাইল সার্ভিসের গুণগত মান নিশ্চিত করতে স্পেকস্ট্রামের দাম কমানো এবং শেয়ারিং ব্যবস্থা থাকা উচিৎ।
মানস্মত ইন্টারনেট জনগণের দাবি উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর মাধ্যমে দেশে ডিজিটাইজেশন প্রক্রিয় আরো সহজ হবে, দেশের মানুষ উপকৃত হবে।
ম্যাক্সিকোসহ পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো ইন্টারনেটকেও মৌলিক অধিকার হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভূক্ত করার ব্যাপারে হাসানুল হক ইনু এমপি মতামত ব্যক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...