Logo
×
ব্রেকিং নিউজ :
একশ’ বছরের পথ পরিক্রমায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাতিকে যা দিয়েছে তা নিঃসন্দেহে গর্ব ও গৌরবের : রাষ্ট্রপতি করযোগ্য ব্যক্তিদের কর দিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে বললেন আইনমন্ত্রী আখাউড়া-আগরতলা রেল রুট পুনরায় চালুর ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর ষাটোর্ধদের বুস্টার ডোজ দেয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢাবি’র শতবর্ষপূর্তি ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের উদ্বোধন আগামীকাল ১৬ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন সরকার শিক্ষার সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৭৩ জন বিদেশে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে সৃষ্টি জটিলতার জন্য আওয়ামী লীগ দায়ী নয় : ওবায়দুল কাদের গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকরের সিদ্ধান্ত বাস মালিকদের
  • আপডেট টাইম : 22/11/2021 01:07 PM
  • 32 বার পঠিত

বাংলাদেশ দূতাবাস আফ্রিকা মহাদেশে অবস্থিত ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবায় বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিরক্ষা শাখা থেকে আনন্দমুখর পরিবেশে গতকাল ২১ নভেম্বর সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করা হয়েছে। 
দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং আমন্ত্রিত স্থানীয় অতিথিবৃন্দের উপস্থিতিতে রাষ্ট্রদূত এবং প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা  জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসটির উদযাপন শুরু হয়।  
অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করা হয়। এ ছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু, তাঁর পরিবারবর্গ, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তি সংগ্রামে আত্মত্যাগকারী শহিদদের রূহের মাগফিরাত কামনা এবং দেশ ও  দেশবাসীর সামগ্রিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়। শহিদদের স্মৃতির উদ্দেশে দাড়িয়ে একমিনিট নীরবতা পালন করার পর দিবস উপলক্ষে প্রেরিত রাষ্ট্রপতি ও সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক, প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এবং তিন বাহিনী প্রধান এর পৃথক পৃথক অভিনন্দন বার্তা পাঠ করা হয়।
সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাসে অভ্যাগত অতিথিদের উপস্থিতিতে দূতাবাসের প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মহাম্মদ সুমন রেজা দিবসটির বিস্তারিত তাৎপর্য তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য  দেন। তিনি সশস্ত্র বাহিনীর গৌরবোজ্জল ইতিহাস, অব্যাহত অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি এবং সাফল্য তুলে ধরেন। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ সরকারের দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার মাধ্যমে সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়ন, সম্প্রসারণ ও উন্নয়নের কথা উল্লেখ করেন। এর পর দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ নির্মিত এবং সদর দপ্তর প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তর, ইএএলবি (বাংলাদেশ মিশন উইং)  প্রেরিত প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়।
অনুষ্ঠানের শেষাংশে ইথিওপিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মো. নজরুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে সশস্ত্র বাহিনী দিবস ২০২১ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য দেন। বক্তব্যে তিনি সশস্ত্র বাহিনী দিবসের গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, বাংলাদশেরে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে ২১ নভেম্বর একটি স্মরণীয় এবং গৌরবময় দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে তিন বাহিনি সম্মিলিতভাবে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর ওপর সর্বাত্মক আক্রমণ শুরু করে। সমন্বিত এই আক্রমণে একতাবদ্ধ হয় মুক্তিবাহিনী, বিভিন্ন আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যগণ ও দেশপ্রেমিক জনতা। পরাজিত হয় পাক হানাদার বাহিনী। মাতৃভূমির সার্বভৌমত্বকে সমুন্নত রাখার পাশাপাশি বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের আত্মত্যাগ সম্পর্কে তিনি আলোকপাত করেন। সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলাসহ শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং শান্তি নিশ্চিতকরণের দায়িত্ব ও দক্ষতা নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করে বিশ্বদরবারে দেশের ভাবমূর্তি বৃদ্ধি করছে। পাশাপাশি জাতিসংঘের প্রশংসা অর্জন করার জন্য তিনি সশস্ত্র বাহিনীর সকল সদস্যদেরকে আন্তরিক অভিনন্দন জানান।
এর পর সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে কেক কাটা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...