×
ব্রেকিং নিউজ :
ত্রিশালে নজরুল জন্মজয়ন্তীর দ্বিতীয় দিনে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কুসিক নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইমরান “দুর্জয় প্রাণের আনন্দে” প্রতিপাদ্যের সাথে নারী ও কিশোরীদের ক্ষমতায়ন উদযাপিত হচ্ছে “ওয়াও ভার্চ্যুয়াল বাংলাদেশ ২০২২” উল্লাপাড়ায় সড়ক দূর্ঘটমায় নিহত ৫ আহত ৬ বিইউপি’র শিক্ষার্থীদের আইএসপিআর পরিদর্শন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে অস্ট্রেলিয়া অ্যাওয়ার্ডস প্রশংসনীয় অবদান রাখছে : স্পিকার বৈশ্বিক আর্থিক প্রভাব সাধারণ মানুষের ওপর ন্যূনতম পর্যায়ে রাখতে সরকার চেষ্টা করছে : অর্থমন্ত্রী সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমেই বাংলাদেশকে থ্যালাসেমিয়া মুক্ত করা সম্ভব : টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী পর্যটন প্রসারে দেশের ইতিবাচক ইমেজ বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হবে : মাহবুব আলী বাংলাদেশ-পর্তুগাল ইন্টার-পার্লামেন্ট ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপ গঠনের প্রস্তাব
  • আপডেট টাইম : 09/05/2022 10:38 PM
  • 54 বার পঠিত

চট্টগ্রামের পাহাড়তলী বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী সিরাজুল হকের মালিকানাধীন সিরাজ স্টোরের তিনটি গোডাউন থেকে ১৫ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।
সোমবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে এসব তেল জব্দ করা হয়। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ফয়েজ উল্যাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, পাহাড়তলী বাজারের সিরাজ স্টোরের তিনটি গোডাউন থেকে ১৫ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়েছে। অভিযান শেষে সিরাজ স্টোরের মালিক সিরাজুল হককে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি তেলগুলো আগের দামে বিক্রি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
ভোক্তা অধিকারের সহকারী পরিচালক আনিছুর রহমান বলেন, ঈদের আগেই পাহাড়তলী বাজারের সিরাজ স্টোরের তিনটি গোডাউনের ১ হাজার কার্টনে ১৫ হাজার লিটার তেল গুদামজাত করে রাখা হয়। এসব তেল খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি না করে গুদামে রেখে দিয়েছেন সিরাজ স্টোরের মালিক। আগের দামে কেনা এসব তেল বর্তমান বাজার দরে বিক্রির অপচেষ্টা করেছিলেন দোকানের মালিক। আমরা অভিযান চালিয়ে সব তেল জব্দ করেছি।
এর আগের দিন রোববার (৮ মে) নগরের কর্ণফুলী মার্কেটের অভিযান চালিয়ে ১ হাজার ৫০ লিটারের বেশি মজুদ করা তেল উদ্ধার করেছিল ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এ ঘটনায় খাজা স্টোরকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আনিছুর রহমান আরো বলেন, বর্তমানে মানুষ বোতলজাত সয়াবিন তেল কিনতে গিয়ে তেলই পাচ্ছেন না। এ ধরনের অভিযোগ আমাদের কাছে আসছে। আমাদের কাজ ভোক্তার অধিকার রক্ষা করা। তাই আমরা প্রতিদিন বিভিন্ন বাজারে অভিযান চালাচ্ছি এবং তেল মজুদের বিষয়টিও বারংবার প্রমাণিত হচ্ছে। আমরা এ ব্যাপারে আরো কঠোর হবো, আমাদের অভিযান আরো জোরদার করব।
তিনি বলেন, বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে বেশি মুনাফা আদায়ের উদ্দেশ্যে তেলের বোতলগুলো ঈদের আগেই মজুত করা হয়েছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...