×
ব্রেকিং নিউজ :
রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সরবরাহ ও মজুদ নিশ্চিত করা হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী দেশ বাঁচাতে নৌকায় ভোট দিন : প্রধানমন্ত্রী গত ২৪ ঘন্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত ৩ জনের মৃত্যু; ৪১০ জন হাসপাতালে ভর্তি বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে: ওবায়দুল কাদের প্রধানমন্ত্রী ৬ ডিসেম্বর জাপানী অর্থনৈতিক অঞ্চল উদ্বোধন করবেন পাকিস্তানিরা যেভাবে আত্মসমর্পণ করেছিল বিএনপি ও অগ্নি সন্ত্রাসীরাও দশ তারিখ ঢাকার বুকে আত্মসমর্পণ করবে : তথ্যমন্ত্রী মাটির অবক্ষয় রোধে জনসচেতনতা বাড়াতে সকলকে আন্তরিক হতে হবে : রাষ্ট্রপতি বাস্তবায়ন ও প্রয়োগের জায়গায় বিজ্ঞান গবেষণাকে গুরুত্ব দিতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছে তারা নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে: শেখ সেলিম মাদকের বিরুদ্ধে সকলকে সোচ্চার হতে হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  • আপডেট টাইম : 22/11/2022 08:30 PM
  • 37 বার পঠিত

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের এক সদস্যকে দেয়া জামিন প্রত্যাহার করেছেন হাইকোর্ট।
বিচারপতি মো.কামরুল হোসেন মোল্লা ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামান সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেন।
আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি এটর্নি এমরান আহমদ ভূঁইয়া  বাসসকে আদালতের আদেশ বিষয়টি জানান। তিনি বলেন, রোববার ২০ নভেম্বর শোয়াইব আহম্মদ নামের এক জঙ্গিকে জামিন দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। এ জামিন আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করার জন্য নোট দেয়া হয়েছিল। এর মধ্যে আজ আবার জামিন আবেদনটি কার্যতালিকায় আসার পর রোববারের দেয়া জামিন আদেশ প্রত্যাহার করেন হাইকোর্ট।
গত বছরের ২৮ আগস্ট ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানায় এ মামলা করেন র‌্যাব-৩ এর নায়েব সুবেদার (ডিএডি) মো.ফিরোজ খান। মামলার এজাহারে বলা হয়, তথ্য-প্রযুক্তির ভিত্তিতে জানা যায়, কোতোয়ালি মডেল থানাধীন বয়ড়া গ্রামের মো. শোয়াইব আহম্মদের বাড়িতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সদস্যরা অবস্থান করছেন। এরপর সেখানে অভিযান চালিয়ে শোয়াইব আহম্মদ ও হুজাইফা আহমেদকে আটক করা হয়।
জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জিহাদি বক্তব্য শুনে জিহাদের প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়েছেন। তারা দেশের নির্বাচনী এবং ভোটাধিকার ব্যবস্থা বিশ্বাস করেন না। সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে নির্বাচিত গণতান্ত্রিক সরকারকে তারা শয়তানের দল বলে অভিহিত করে। তারা দেশের সংবিধান ও জাতীয় সংসদকে স্বীকার করেন না। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা ‘মুজাহিদ আল হিন্দ বাংলাদেশ’ সাংগঠনিক ট্রেনিং ফরম সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করলে  জানান যে, তারা ‘আনসার আল ইসলাম’র মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ হন। পরে মুজাহিদ আল হিন্দ বাংলাদেশ নামক লোন উলফা (একাকী শিকার) সংগঠন তৈরির জন্য সদস্য সংগ্রহ ও অর্থ সংগ্রহ করে আসছিলেন। তারা সশরীরে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ ব্যক্তিদের মাঝে দেশব্যাপী ফরম বিতরণ করতেন। 
এ অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে এ মামলা দায়ের করা হয়। এ মামলায় নিম্ন আদালত না-মঞ্জুর করলে আসামি শোয়াইব আহম্মদ হাইকোর্টে আসেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...