×
  • প্রকাশিত : ২০২৩-০৩-১১
  • ৪৭৫ বার পঠিত
  • নিজস্ব প্রতিবেদক

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি সৌদি আরব, চীন ও ভূটানকে বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র উল্লেখ করে বলেছেন, এসব দেশের বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশের এনার্জি, এগ্রোবেজড ইন্ডাস্ট্রি, ফুড প্রসেসিং ও অবকাঠামো উন্নয়ন খাতে আরো বেশি বিনিয়োগের আগ্রহ  প্রকাশ করেছে।
তিনি আজ শনিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) চলমান বাংলাদেশ বিজনেস সামিটে যোগদানকৃত সৌদি আরব, চীন ও ভূটানের বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলাদাভাবে মতবিনিম শেষে  সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ এখন খুবই লাভজনক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের বিভিন্ন আকর্ষণীয় স্থানে একশ’টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। বেশ কয়েকটির কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। দেশীয় প্রতিষ্ঠানসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ এখানে বিনিয়োগের জন্য এগিয়ে এসেছে, আরো বিপুল বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। 
বাংলাদেশ সরকার বিনিয়োগের জন্য বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে উল্লেখ করে টিপু মুনশি বলেন, ‘বিশেষ করে বিনিয়োগের আনুষ্ঠানিকতা সহজ করেছে। এ বিষয়গুলো তাদের কাছে তুলে ধরেছি। সৌদি আরব এবং চীন বাংলাদেশে বড় ধরনের বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে।’
বাণিজ্যমন্ত্রী প্রথমে সৌদি আরবের বাণিজ্যমন্ত্রী ড. মাজেদ বিন আব্দুল্লাহ আলকাসাবি’র সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় সৌদি আরবের বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে বড় ধরনের বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি আরব। এনার্জি খাতে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে। এছাড়া, বাংলাদেশের এগ্রিকালচার এবং ফুড সেক্টরে বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। সৌদি আরবের বিনিয়োগকারীরা সবদিক বিবেচনা করে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করবে।
টিপু মুনশি এরপর চায়না কাউন্সিল ফর দ্য প্রমোশন অব ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড’র জাং শাওগাং এর সঙ্গে মতবিনিময় করেন। 
এ সময় চীনের বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ চীনের চতুর্থবৃহৎ ব্যবসায়িক অংশীদার। বাংলাদেশে চীনের অনেক বিনিয়োগ রয়েছে। চীন বাংলাদেশের উন্নয়নের অংশীদার। বাংলাদেশের এনার্জি, এগ্রোবেজড ইন্ডাস্ট্রি, ফুড প্রসেসিং এবং অবকাঠামো খাতে আরো বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। চীনের বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে আগ্রহী।
পরে বাণিজ্য মন্ত্রী ভূটানের শিল্প, বাণিজ্য ও কর্মসংস্থানমন্ত্রী কার্মা দর্জির সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সময় ভূটানের মন্ত্রী বলেন, ভূটান বাংলাদেশের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধি করতে আগ্রহী। এজন্য উভয় দেশের নৌপথ সচল এবং ব্যবসা বাণিজ্যের জন্য বন্দরের সমস্যাগুলো দূর করার আহ্বান জানান তিনি।
এর আগে বাণিজ্যমন্ত্রী এফবিসিসিআই’র ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টারে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী বাংলাদেশ বিজনেস সামিট-২০২৩’র উদ্বেধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য  প্রদান করেন। প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘বাংলাদেশ বিজনেস সামিট-২০২৩’র উদ্বোধন করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
#
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat