Logo
×
ব্রেকিং নিউজ :
দুর্নীতি, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির মানুষ উন্নয়ন চায় বলেই পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বিপুল ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন : সেতুমন্ত্রী পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক : তথ্যমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুপ প্রভাব মোকাবেলায় নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার : পরিবেশ মন্ত্রী ডিএনসিসি মেয়রের সাথে কসভোর রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ টাঙ্গাইলের কাগমারীতে কন্যাসন্তান জন্ম হলেই মিলছে পুলিশ কর্মকর্তার উপহার মেহেরপুর ও নীলফামারীতে শীতার্তদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ ব্রিসবেন টেস্ট: সিরিজ জিততে ভারতের দরকার ৩২৪ রান, অস্ট্রেলিয়ার ১০ উইকেট লা লিগা: মেসির লাল কার্ডে বার্সাকে হারিয়ে সুপার কাপের শিরোপা জিতরো বিলবাও দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত ৬৯৭,মারা গেছেন ১৬ জন
  • আপডেট টাইম : 11/01/2021 10:23 PM
  • 21 বার পঠিত

পিরোজপুর জেলায় গত ২০২০ সালে শৃঙ্খলা রক্ষা করা এবং আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে ৭৬০টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে গঠিত এসব আদালত এ সময় বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুষের অপরাধের ধরন অনুযায়ী অর্থদ- ও কারাদ-ের আদেশ দিয়েছে।
২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত জেলার নদ-নদী, হাট-বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে পরিচালিত আদালত ৩৪ লাখ ৬০ হাজার ৩৩৫ টাকা অর্থদ- আদায় করে এবং ৫৩ জনকে সর্বনি¤œ ৩দিন থেকে সর্বোচ্চ ২ বছর কারাদ- প্রদান করে। এপ্রিল মাসে সর্বাধিক ১৯২টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়। এছাড়া জানুয়ারি মাসে ৩৬টি, ফেব্রুয়ারি মাসে- ৩৬টি, মার্চ মাসে ৬৯টি, মে মাসে ৬৩টি এবং জুন মাসে ৫৮টি, জুলাই মাসে-৩৮টি, আগস্ট মাসে-৩৬টি, সেপ্টেম্বর মাসে-৪৩টি, অক্টোবর মাসে-৬২টি, নভেম্বর মাসে-৭৩টি, ডিসেম্বর মাসে ৫৪টি নিয়ে মোট ৭৬০টি আদালত পরিচালনা করা হয় বলে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ের বিচার শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পিযুস কুমার চৌধুরী জানান।
ভ্রাম্যমান আদালতে ২০২০ সালে ২৫২০টি মামলা দায়ের করে ২৮০৭ জনকে আসামী করা হয়, এদের মধ্যে ৫৩ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- দেয়া হয় বলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বিচার শাখার একটি সূত্র জানায়। ৭৬০টি ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে যেসব আ্ইন অমান্যকারীদের কারাদ- ও অর্থদ- প্রদান করা হয়েছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে নিষিদ্ধ জাল ব্যবহার করা, জাটকা ও ডিম ভরা ইলিশ শিকার, ইভটিজিং, খাদ্যে ভেজাল, প্রকাশ্যে ধূমপান, মাদক সেবন ও বিক্রয়, পরীক্ষায় অসাধু উপায় অবলম্বন, বাল্যবিবাহ, ভোক্তা অধিকার আইন, পরিবেশ আইন এবং বিএসটিআই আইন অমান্য করা।
পিরোজপুরের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার ফলে তাৎক্ষণিক কারাদ- অথবা অর্থদ-ের আদেশ দেয়ায় মোবাইল কোর্টের আওতাভুক্ত বিভিন্ন ধরনের অপরাধের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে আসছে। তিনি বলেন, এই আদালত পরিচালনা অব্যহত থাকবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...