×
ব্রেকিং নিউজ :
ইইউ নির্বাচন পর্যবেক্ষক সম্পর্কে সরকারের খোলামেলা দৃষ্টিভঙ্গিকে স্বাগত জানিয়েছে জর্ডান সেনাবাহিনী সিরিয়া সীমান্তে ২৭ মাদক চোরাকারবারীকে হত্যা করেছে চট্টগ্রামে ১৭ ফেব্রুয়ারি বইমেলা শুরু হবে : মেয়র উল্লাপাড়ায় গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত ১৪ জন জাতির পিতাকে হত্যার পর রাজনীতি নিষিদ্ধ সত্ত্বেও প্রতিবাদ করেছেন কবিরা : প্রধানমন্ত্রী অসংক্রামক ব্যাধিতে মৃত্যু হ্রাসের মাধ্যমে এসডিজি অর্জনে কাজ করছে দক্ষিণ সিটি : মেয়র তাপস রাজধানীর কোনো জলাধার ভরাট করা যাবে না : ডিএনসিসি মেয়র বিএনপি লবিস্ট নিয়োগ দিয়ে অপপ্রচার চালিয়ে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ করেছে : সরকারি দল চলচ্চিত্র শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট এর প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত দেশের আট বিভাগের অধস্তন আদালত মনিটরিং’র দায়িত্বে হাইকোর্টের আট বিচারপতি
  • আপডেট টাইম : 03/01/2022 10:31 PM
  • 58 বার পঠিত
ফাইল ছবি

দক্ষিণ কোরিয়া ড্রোন টেকনোলজি ও জিও-স্পেশালাইজড ল্যাব স্থাপনে বাংলাদেশের সাথে কাজ করতে আগ্রহ ব্যক্ত করেছে।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সাথে আজ এক দ্বি-পক্ষীয় বৈঠকে বাংলাদেশে নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জ্যাং-কিউন এ আগ্রহ ব্যক্ত করেন।
রাজধানীর আগারগাঁওস্থ আইসিটি টাওয়ারে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রীর দপ্তরে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
আইসিটি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. খন্দকার আজিজুল ইসলাম, উপসচিব মো. মনির হোসেন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. বিকর্ণ কুমার ঘোষ, ঢাকাস্থ দক্ষিণ কোরিয়া দূতাবাসের প্রথম সচিব জিংইউন লি, দক্ষিণ কোরিয়ার খ্যাতনামা টেকনোলজি প্রতিষ্ঠান হোজাং সলিউশনস কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান নিবার্হী সিউক লি এবং আইসিটি বিভাগ ও এর অধীন সংস্থাগুলোর কর্মকর্তাবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে বাংলাদেশে কোরিয়ান ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহার করে ওয়াটার কোয়ালিটি ম্যানেজমেন্ট ও অ্যাকোয়াকালচার বিষয়ে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে একটি পাইলট প্রকল্প বাস্তবাবায়নের কথাও জানানো হয়।
এ লক্ষে দক্ষিণ কোরিয়ান রাষ্ট্রদূত, বাংলাদেশের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ, ভূমি, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন এবং পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাদের সক্ষমতা তৈরির প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।  
আইসিটি প্রতিমন্ত্রী এ সময় বলেন, দক্ষিণ কোরিয়া বাংলাদেশের  বিশ্বস্ত বন্ধু। তিনি ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য আইসিটি বিভাগ ও অন্যান্য মন্ত্রনালয়ের মধ্যে সমন্বয় করে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের অভিমত ব্যক্ত করেন। 
বৈঠকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের পক্ষ থেকে আইসিটি বিভাগসহ সড়ক পরিবহন সেতু মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ , জ্বালানি ও খনিজ  সম্পদ, এলজিআরডি, কৃষি ও পূর্ত মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের উল্লিখিত প্রক্রিয়ার সাথে সংযুক্ত করার পরামর্শ দেয়া হয়।
এছাড়া বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জিও-স্পেশালাইজড ল্যাব স্থাপনের ব্যাপারে এদেশের সরকারি কর্মকর্তাদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান কোইকার মাধ্যমে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়।
ড্রোন টেকনোলজি এবং জিও-স্পেশালাইজড ল্যাব প্রতিষ্ঠার বিষয়ে আগামী ফেব্রুয়ারিতে কোঅর্ডিনেশন মিটিং করার বিষয়ে উভয় দেশই একমত পোষণ করে।
অপরদিকে, দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের তথ্য-প্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আইসিটি খাত অনেক এগিয়ে যাওয়ার প্রশংসা করে বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্বের উদীয়মান অর্থনীতির দেশ হিসেবে পরিগণিত হয়েছে। 
রাষ্ট্রদূত বলেন  আগামী দিনগুলোতে দক্ষিণ কোরিয়া বাংলাদেশ’র সাথে প্রযুক্তিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে  যৌথভাবে কাজ করবে। প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশ আরো অনেক দুর এগিয়ে যাবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...