×
ব্রেকিং নিউজ :
সীতাকুন্ডে গৃহবধূকে গণধর্ষণ ও হত্যা মামলায় এক জনের মৃত্যুদন্ড নৃত্যকলা সাংস্কৃতিক ও আত্মিক মেলবন্ধন তৈরি করে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার বন্ধে আরো তৎপর হোন : ডিসিদের প্রতি তথ্যমন্ত্রী ভিজিডি দুস্থ নারীদের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করছে : ইন্দিরা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেনকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের শুভেচ্ছা বিএসএমএমইউ তহবিলে আর্থিক সহায়তা দিতে বিত্তবান ও ব্যাংকগুলোকে এগিয়ে আসার আহবান বর্তমান সরকার নৌখাতে প্রচুর বিনিয়োগ করেছে : খালিদ মাহমুদ চৌধুরী আসিয়ান ডায়ালগ পার্টনার হতে ইন্দোনেশিয়ার সমর্থন চেয়েছেন ড. মোমেন আগামী ২৫ জানুয়ারি থেকে বিমানের শারজাহ ফ্লাইট চালু হচ্ছে ‘ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইন’ মতামতের জন্য প্রকাশিত : ভূমিমন্ত্রী
  • আপডেট টাইম : 12/01/2022 06:50 PM
  • 38 বার পঠিত

‘মুজিব বর্ষে কেউ গৃহহীন থাকবে না’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে বগড়–ায় গৃহহীনদের জন্য আশ্রয়াণ প্রকল্প-২ এর আওতায় বগুড়ার ১২ টি উপজেলায় ৫০১টি গৃহ বরাদ্দের কাজ এগিয়ে চলেছে। আশ্রয়াণ-২ প্রকল্পের অধীনে প্রকল্পের দায়িত্ব প্রাপ্ত রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর সাহাদৎ হোসেন জানান, বগুড়ায় এবার তৃতীয় পর্যায়ের প্রথম ধাপে জেলার ১২ টি উপজেলায় গৃহহীন পরিবারের ৫০১ টি পাবে। গৃহহীনরা আর রোদে পুড়বে না, বৃষ্টিতে ভিজবে না। অন্যের বাড়ির বারান্দায় থাকবে না। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা চান গৃহহীনদের নিজস্ব ঠিকানা হোক। এমনটি জানালেন বগুড়া জেলা প্রশাসন। এ ঘরের গুলোর প্রায় ৫০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক মোঃ জিয়াউল হক। আগামী ২৬ মার্চ এ ঘর গুলো গৃহহীনদের বুঝিয়ে দেয়া হবে বলে জানান হয়। তৃতীয় পর্যায়ে দ্বিতীয় ধাপে আরো গৃহহীনদেন জন্য নতুন বরাদ্দ আসবে এমনটি জানান জেলা প্রশাসনের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সাহাদৎ হোসেন। এবার নির্মাণ সামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় ঘর নির্মাণের ব্যয়ও বেড়েছে।
৫০১ ঘরের প্রতিটিতে ব্যয় হবে ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এর আগে প্রতিটি ঘরের নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছিল ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। ৫০১ ঘরের মোট নির্মাণ ব্যায় হবে ১২ কোট ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা।
তিনি জানান বগুড়া জেলার আদমদীঘি উপজেলায় ১৫টি, বগুড়া সদরে ৪০টি, ধুনট উপজেলায় ১০০টি , দুপচাঁচিয়ায় ৩০টি, গাবতলীতে ৩৫টি , কাহালুতে ৪৬ টি , নন্দীগ্রামে ৪০টি, সারিয়াকান্দিতে ৫০টি, শাজাহানপুরে ৩০টি, শেরপুরে ৪৫টি, শিবগঞ্জে ৩৫টি ও সোনাতলা উপজেলায় ৩৫টি ঘর নির্মাণ কাজ চলছে।
তৃতীয় পর্যায়ের প্রথম ধাপের কাজ শেষ হওযার পর দ্বিতীয় দফারকাজ শুরু হবে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়নিত নজরদারী চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...